12 জোড়া করোটি স্নায়ু- 31জোড়া সুষুম্না স্নায়ু।Cranial and Spinal Nerves

0
533
12 জোড়া করোটি স্নায়ু
12 জোড়া করোটি স্নায়ু

মানুষের 12 জোড়া করোটি স্নায়ু উপস্থিত। নিচে 12 জোড়া করোটি স্নায়ুর বিশদ বিবরণ কাজ ও উদাহরণ সমেত আলোচনা করা হল।

  • ✅অলফ্যাকটি করোটি স্নায়ু
  • ✅অপটিক করোটি স্নায়ু
  • ✅অকালমটোর করোটি স্নায়ু
  • ✅ট্রোকলিয়ার করোটি স্নায়ু
  • ✅ট্রাইজেমিনাল করোটি স্নায়ু
  • ✅অ্যাবডুসেন্‌স করোটি স্নায়ু
  • ✅ফেসিয়াল করোটি স্নায়ু
  • ✅অডিটরি করোটি স্নায়ু
  • ✅গ্লসোফেরিঞ্জিয়াল করোটি স্নায়ু
  • ✅ভেগাস করোটি স্নায়ু
  • ✅স্পাইনাল অ্যাক্সেসরি করোটি স্নায়ু
  • ✅হাইপোগ্লসাল করোটি স্নায়ু

I অলফ্যাক্টরি স্নায়ু : নাকের শ্লেষ্মা ঝিল্লি থেকে উৎপন্ন হয়ে অলফ্যাক্টরি বাল্ব নাসামস্তিষ্কে শেষ হয়। কাজ – ঘ্রাণের অনুভূতি বহন করা।  

II. অপটিক স্নায়ু (সংজ্ঞাবহ) : চোখের রেটিনা (Retina) থেকে উৎপন্ন হয়ে গুরুমস্তিষ্কের অক্সিপিটাল খণ্ডে শেষ হয়। ● কাজ—রেটিনা দর্শনানুভূতি বহন করে।

 III. অকিউলোমোটর স্নায়ু (মিশ্র প্রধানত চেষ্টীয়) : (i) সংজ্ঞাবহ স্নায়ু— স্নায়ুতন্তুগুলি চক্ষুগোলকের পেশিসমূহ থেকে উৎপন্ন হয়ে মধ্য মস্তিষ্কে শেষ হয়। • কাজ—পেশিসমূহ থেকে উৎপন্ন স্নায়ু-আবেগকে মধ্যমস্তিষ্কে পৌঁছে দেয়।

(ii) চেষ্টীয় স্নায়ু—মধ্যমস্তিষ্ক থেকে উৎপন্ন হয়ে চক্ষুগোলকের রেকটাস পেশি, সিলিয়ারি পেশি ইত্যাদিতে সরবরাহ করে। • কাজ—সংজ্ঞাবহ স্নায়ু ও চেষ্টীয় স্নায়ু চক্ষুগোলকের সঞ্চালন, তারারন্ধ্রের সংকোচন ঘটায়।

 IV. ট্রোক্লিয়ার স্নায়ু (মিশ্র প্রধানত চেষ্টীয়) : (i) সংজ্ঞাবহ চক্ষুগোলকের সুপেরিয়র অবলিক পেশি থেকে উৎপন্ন হয়ে মধ্যমস্তিষ্কে শেষ হয়। কাজ—চোখের সুপিরিয়র অবলিক পেশি থেকে সংবেদন বহন করে।(i) চেষ্টীয় স্নায়ু—মধ্যমস্তিষ্ক চতুর্থ করোটি নিউক্লিয়াস থেকে উৎপন্ন হয়ে চক্ষু-গোলকের সুপিরিয়র ও অবলিক রেক্টাস

| পেশিসমূহকে সরবরাহ করে। • কাজ চক্ষুগোলকের সঞ্চালনকে নিয়ন্ত্রণ করে।

(DV. ট্রাইজেমিনাল স্নায়ু (মিশ্র) : সংজ্ঞাবহ স্নায়ু : (i) চোখের রেটিনা, সিলিয়ারি বডি, অশ্রুগ্রন্থি, নাসাবিবরের

কোংশের শ্লেষ্মাঝিল্লি, মুখমণ্ডল, কপাল, মাড়ি, দাঁত, চর্বণ পেশি ইত্যাদি থেকে উৎপন্ন হয়ে মধ্যমস্তিষ্কে যায়।

এই সব অংশ থেকে স্পর্শ, যন্ত্রণা এবং উচ্চতার সংবেদন মস্তিষ্কে যায়।

• কাজ-

(ii) চেষ্টীয় স্নায়ু—পন্‌সের উপরের অংশ থেকে উৎপন্ন হয়। ট্রাইজেমিনাল স্নায়ুর নাম অনুযায়ী এই করোটি স্নায়ুটি তিনটি

শাখায় বিভক্ত। যেমন—অপথ্যালামিক, ম্যাক্সিলারি এবং ম্যান্ডিবুলার স্নায়ুগুলি নিয়ে গঠিত। (1) অপথ্যালামিক স্নায়ু (Opthalamic

| nerve)—এটি ছোটো স্নায়ু যা চোখের অশ্রুগ্রন্থি, অক্ষিপল্লভ, কনজাংটিভা ইত্যাদিতে সরবরাহ করে। (2) ম্যাক্সিলারি স্নায়ু

(Maxillary nerve)— এই শাখাটি ঊর্ধ্ব চোয়ালে শেষ হয়। (3) ম্যান্ডিবুলার স্নায়ু (Mandibular nerve)—এই শাখাটি

অপেক্ষাকৃত বড়ো হয় এবং নিম্নচোয়ালে সরবরাহ করে।

31

→ VI. অ্যাবডুসেন্‌স স্নায়ু (মিশ্র—প্রধানত চেষ্টীয়) : (i) সংজ্ঞাবহ স্নায়ু–চক্ষুগোলকের রেক্টাস পেশি থেকে উৎপন্ন

হয়ে পনসে শেষ হয়। • কাজ—প্রোপ্রিও সেপশন। (ii) চেষ্টীয় স্নায়ু—পস থেকে উৎপন্ন হয়ে চোখের পার্শ্ব রেক্টাস পেশিতে

যায়। • কাজ—চক্ষুগোলকের সঞ্চালন।

DVII. ফেসিয়াল স্নায়ু (মিশ্র) : (i) সংজ্ঞাবহ স্নায়ু ঃ জিভের দুই-তৃতীয়াংশে অবস্থিত স্বাদ কোরক (টেস্ট বাড) থেকে

উৎপন্ন হয়ে পনসে শেষ হয়। • কাজ—স্বাদ অনুভূতি মস্তিষ্কে বহন করে।

(ii) চেষ্টীয় স্নায়ু—পনস থেকে উৎপন্ন হয়ে মুখমণ্ডলের এবং গ্রীবার পেশি, অশ্রুগ্রন্থি, লালাগ্রন্থি ইত্যাদিতে সরবরাহ

কাজ—স্বাদগ্রহণ, মুখের অভিব্যক্তি (Facial expression), অশ্রুক্ষরণ, লালারস ক্ষরণ ইত্যাদি কাজ করে।

করে।

7: D VIII. ভেস্টিবিউলো-কোক্লিয়ার স্নায়ু বা অডিটরি স্নায়ু (মিশ্র—প্রধানত সংজ্ঞাবহ) : এই প্রকার করোটি স্নায়ু দুটি

শাখায় বিভক্ত—ভেস্টিবুলার শাখা এবং কোক্‌লিয়ার শাখা।

1. ভেস্টিবিউলার স্নায়ু —(i) সংজ্ঞাবহ স্নায়ু— কানের ভেস্টিবিউলার অ্যাপারাটাস (অর্ধচন্দ্রাকৃতি নালি, স্যাকুলি ও

ইউট্রিকল) থেকে উৎপন্ন হয়ে পনস এবং লঘুমস্তিষ্কে শেষ হয়। • কাজ—দেহের ভারসাম্য রক্ষায় অংশ নেয়। (ii) চেষ্টীয়

স্নায়ু ঃ পনস থেকে উৎপন্ন হয়ে কানের অর্গান অফ্ কর্টির কেশ কোশে এবং ভেস্টিবিউলার অ্যাপারাটাসে শেষ হয়।

• কাজ—অর্গান অফ্ কর্টির কেশ কোশের সংবেদনশীলতাকে নিয়ন্ত্রণ করে।

2. কক্‌লিয়ার স্নায়ু—(i) সংজ্ঞাবহ স্নায়ু—কানের অর্গান অফ কর্টি (স্পাইরাল অঙ্গ) থেকে উৎপন্ন হয়ে সুষুম্না শীর্ষকে

শেষ হয়। • কাজ—শ্রবণ সংবেদন প্রেরণ করে। (ii) চেষ্টীয় স্নায়ু—পনস থেকে উৎপন্ন হয়ে অর্গান অফ্ কর্টির কেশ কোশে

এবং স্পাইরাল অঙ্গে শেষ হয়। • কাজ—শব্দ তরঙ্গে প্রতি কেশ কোশের কোশগুলির বিচলনকে নিয়ন্ত্রণ করে।

DIX. গ্লোসোফেরিঞ্জিয়াল স্নায়ু (মিশ্র) : (i) সংজ্ঞাবহ স্নায়ু—জিভ, টনসিল, গলবিল, ক্যারোটিড সাইনাস্ ও ক্যারোটিড

বডি থেকে উৎপন্ন হয়ে সুষুম্নাশীর্ষকে শেষ হয়। • কাজ—স্বাদগ্রহণ, রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।

(ii) চেষ্টীয় স্নায়ু—সুষুম্নাশীর্ষক থেকে উৎপন্ন হয়ে গলবিলের পেশি, প্যারোটিড গ্রন্থিতে শেষ হয়। • কাজ—তালু ও

গলবিলের পেশির সঞ্চালন এবং প্যারোটিড গ্রন্থি থেকে লালারসের ক্ষরণ ইত্যাদির কাজকে নিয়ন্ত্রণ করে।

→ X. ভেগাস্ স্নায়ু (মিশ্র) ঃ অধিক শাখাপ্রশাখাযুক্ত গুরুত্বপূর্ণ করোটি স্নায়ু। (i) সংজ্ঞাবহ স্নায়ু—হৃৎপিণ্ড, ফুসফুস, ট্রেকিয়া,

গলবিল, গ্রাসনালি, পাকস্থলী, পিত্তাশয় ইত্যাদি থেকে উৎপন্ন হয়ে সুষুম্নাশীর্ষকে অবস্থিত ডরসাল্ নিউক্লিয়াসে শেষ হয়।

• কাজ—(i) সংজ্ঞাবহ স্নায়ু বিভিন্ন আন্তরযন্ত্র থেকে সংবেদন (Sensation) বহন করে।

(ii) চেষ্টীয় স্নায়ু—ডরসাল নিউক্লিয়াস থেকে উৎপন্ন হয়ে হৃৎপিণ্ড, ফুসফুস, পৌষ্টিকনালি, অগ্ন্যাশয় গ্রন্থি ইত্যাদিতে

সরবরাহ করে। • কাজ—হৃৎপিণ্ড, ফুসফুস, পাকস্থলীর ক্রমসংকোচন, গ্রন্থির রসক্ষরণ ইত্যাদি কাজকে নিয়ন্ত্রণ করে।

→ XI. স্পাইনাল অ্যাক্সেসরি স্নায়ু (মিশ্র—প্রধানত চেষ্টীয়) : (i) সংজ্ঞাবহ স্নায়ু—গলবিল, স্বরযন্ত্র এবং কোমল টাকরা

থেকে উৎপন্ন হয়ে মেডালাতে শেষ হয়। • কাজ—এই সব অংশ থেকে সংবেদন বহন করে। (ii) চেষ্টীয় স্নায়ু —–সংখ্যায়

দুটি, যথা—ক্র্যানিয়াল (Cranial) ও স্পাইনাল (Spinal)। এদের উৎপত্তিস্থল যথাক্রমে সুষুম্নাশীৰ্ষক ও সুষুম্নাকাণ্ডের গ্রীবা

অংশ। • কাজ—গ্রীবা, গলবিল, স্বরযন্ত্রের পেশির সঞ্চালন।

DXII. হাইপোগ্লসাল স্নায়ু (মিশ্র—প্রধানত চেষ্টীয়) : (i) সংজ্ঞাবহ স্নায়ু—জিভের পেশি থেকে উৎপন্ন স্নায়ু হাইপোগ্লসা-

স্নায়ুর মাধ্যমে গিয়ে সুষুম্নাশীর্ষকে শেষ হয়। • কাজ—জিভ থেকে সংবেদন বহন করে। (ii) চেষ্টীয় স্নায়ু—সুষুম্নাশীর্ষ

থেকে উৎপন্ন হয়। • কাজ—এই স্নায়ু জিভ ও স্বরযন্ত্রের পেশির সঞ্চালনে অংশগ্রহণ করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here